শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১,  ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮,  Friday, July 30, 2021


দ্যা বাংলা টাইম

আপডেট : 1 month ago

Sun, Jun 13, 2021 9:49 AM

 

দুর্ধর্ষ বেলজিয়াম, পাত্তাই পেল না রুশ ব্রিগেড

Card image cap

ক্রিমিয়ান যুদ্ধ হোক কিংবা প্রথম বিশ্বযুদ্ধ, রাশিয়ার সাহসিকতার সাক্ষী হয়েছে সভ্যতার ইতিহাস।  তবে ইউরোর মাঠে ফুটবল যুদ্ধে বেলজিয়ামের কাছে মাথা নত করতে হলো রুশ ব্রিগেডকে।  শনিবার রাশিয়াকে তিন গোলে পরাস্ত করেছে বেলজিয়াম।  গোল দুটি করেছেন লুকাকু ও মিউনিয়ার।

প্রথমার্ধের শেষে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম।  মাত্র ১০ মিনিটের মাথায় বেলজিয়ামকে লিড এনে দেয় রোমেলু লুকাকু।  মার্টেন্সের ক্রস ঠিক করে ক্লিয়ার করতে পারেনি সেমেনভ।  ওই সুযোগটাই তুলে নিলেন লুকাকু।  কোনাকুনি একটা নিচু শটে তিনি নিজের জাত চিনিয়ে দিলেন।  তবে বেলজিয়ামের হয়ে গোলের ব্যবধান বাড়ান থোমা মিউনিয়ার।  বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমে তিনি ৩৪ মিনিটে কাজের কাজটি করে দেন।  হ্যাজার্ড গোলের অভিমুখে বক্সের ভিতরে একটা ক্রস বাড়িয়েছিলেন।  রাশিয়ার গোলরক্ষক শানিন ঠেলে বের করে দিতে চেয়েছিলেন।  তবে তিনি মিউনিয়ারের কাছে উপহার স্বরূপ বলটা সোজা পাঠিয়ে দেন।  এরপর মিউনিয়ারের আর কোনো ভুল হয়নি।  তিনি সোজা তেকাঠির মধ্যে বলটা চালান করে দেন।

ম্যাচের প্রথমার্ধে বেলজিয়ামকে দেখে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী বলেই মনে হয়েছে।  দলের পারফরম্যান্সের খুব স্বাভাবিকভাবেই খুশি হবেন রবার্তো মার্টিনেজ।  বল দখলের লড়াইয়ে বেলজিয়াম বিপক্ষের থেকে অনেকটাই এগিয়ে ছিল।  একজন ফুটবলার ঠিক যেখানে বল ছাড়ছিলেন, অন্যজন সেখান থেকেই ধরে নিচ্ছিলেন।  তবে রাশিয়ার কথা যদি বলতে হয়, ওরা নিজেদের বিপদ নিজেরাই ডেকে এনেছে।  বেলজিয়ামকে ঠেকাতে রুশ ব্রিগেডের যে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হবে, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই বেলজিয়াম যথেষ্ট অ্যাডভান্টেজ পজিশনে ছিল।  সেইসঙ্গে রাশিয়া তাদের তৃতীয় পরিবর্তনটাও করে ফেলে।  বেরিনভের পরিবর্তে মাঠে দিভিভ।  এই প্রসঙ্গে আপনাদের জানিয়ে রাখি, ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ ১১টা ম্যাচে রাশিয়া একটাতেও জিততে পারেনি।  ৭২ মিনিটে হয় বেলজিয়ামের দ্বিতীয় খেলোয়াড় পরিবর্তন।  মার্টিনেজের পরিবর্তে মাঠে নামেন ইডেন হ্যাজার্ড।  পাশাপাশি, ততক্ষণে ম্যাচের রাশ কিন্তু আবারো বেলজিয়ামের হাতে চলে আসে।

মোটামুটি বেলজিয়াম যে জোড়া গোলে জিততে চলেছে সেটা একপ্রকার নিশ্চিত হয়েই গিয়েছিল।  একেবারে পড়ন্ত বেলায় রাশিয়ার লজ্জা আরো কিছুটা বাড়িয়ে দিলেন সেই লুকাকু।  ৮৮ মিনিটে রাশিয়ার কফিনে শেষ পেরেকটি তিনিই পোঁতেন।  এই জোড়া গোল লুকাকু তার ক্লাব সতীর্থ এরিকসনকে উৎসর্গ করলেন।

আপাতত গ্রুপ বি পয়েন্ট টেবিলে সবার ওপরে চলে গেল বেলজিয়াম।  ফিনল্যান্ড আজ জিতলেও গোলপার্থক্যে বেলজিয়ামই এগিয়ে থাকল।  আগামী বৃহস্পতিবার ডেনমার্কের বিরুদ্ধে পরের ম্যাচ খেলতে নামবে বেলজিয়াম। অন্যদিকে বুধবার ফিনল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে রাশিয়া।